বুধবার, ১২ আগস্ট ২০২০ ২৮শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Bangladesh Total News

দিনাজপুরের বিরামপুরে রাতের বেলায় ৩৪২টি সরকারি চালের বস্তা আটক

প্রকাশের সময় : ৩১ জুলাই, ২০২০ ২:৫৩ : পূর্বাহ্ণ

মোঃ রেজওয়ান আলী,বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি–দিনাজপুরের বিরামপুরে ৩৪২টি সরকারি চালের বস্তা ট্রাকে পাচারের সময় ট্রাকসহ চালের বস্তা গুলো আটক করেছে বিরামপুর উপজেলা প্রসাশন তথ্য মতে জানা যায়।উক্ত সময়ে চালগুলোর মালিকের রুপ ধাঁরণ করেন দবিরুল ইসলাম নামের এক ব্যবসায়ী। আটক কৃতের নামে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দেওয়া হয়ে যায়। ৩০শে জুলাই ২০২০ইং তারিখ বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪ ঘটিকার সময় উক্ত ব্যবসায়ী দবিরুল ইসলামকে দিনাজপুর জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে মর্মে জানা যায়। আরও জানা যায় যে,গতবুধবার রাত ০৯ঃ৩০ ঘটিকার সময় শহরের কলাবাগান এলাকা থেকে ট্রাকসহ চালগুলো আটক করেন বিরামপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহসিয়া তাবাসসুম। আটক দবিরুল ইসলাম নবাবগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের ইয়াকুব আলীর পুএ। এ বিষয়ে বিরামপুর থানা কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান মনির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।আটক কৃত ব্যক্তির এজাহার সূত্রে জানা যায় যে,গত বুধবার রাএি বেলায় বিরামপুর শহরের মহিলা কলেজ মাঠের পার্শ্ব রাস্তা হয়ে নবাবগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের দবিরুল ইসলাম নামের ব্যক্তিটি ৩৪২টি সরকারি চালের বস্তা মিনি ট্রাকের সহযোগিতায় পাচার করে নিয়ে যাচ্ছিলেন। এ সময় ট্রাকটি মহাসড়কে ওঠার সময় ট্রাকের সামনের চাকা পানচার হলে ট্রাকটি রাস্তার পাশে উল্টে পড়ে।এ সময় স্থানীয় জনসাধারণ বস্তার গায়ে সরকারি খাদ্যগুদামের লোগো দেখে স্থানীয় প্রশাসনকে অবগত করেন। তাৎক্ষণিক ভাবে বিরামপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তথায় উপস্থিত হয়ে ট্রাকসহ চালগুলো আটক করেন। এ সময় দবিরুল ইসলাম চালগুলো নিজের দাবি করে বিরামপুর মোস্তফা অটো রাইসমিলে প্রক্রিয়াজাত করে সরকারি খাদ্যগুদাম দাউদপুরে জমা দেওয়া হবে বলে জানান।সহকারী কমিশনার তাঁকে চালগুলোর বৈধ কাগজপত্র দেখাতে বললে তিনি অপারগতা প্রকাশ করেন তাল বাহানা আরম্ভ করেন। এ বিষয়েবিরামপুর থানার ওসি জানান, আটক কৃত ব্যক্তির চালগুলোর বৈধ কাগজ দেখিয়ে প্রমান করতে বলার পরও দবিরুল মিয়া প্রমান করতে পারেন নাই। সেই মর্মেসরকারি খাদ্যগুদামের লোগো ব্যবহার করে অধিক মুনাফার আশায় কালোবাজারি করার অভিযোগে তাকে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলায় জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনার সঙ্গে যদি আরো কেউ জড়িত থাকে,তদন্তে অন্য কারো সন্ধান পাওয়া গেলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।এ বিষয়ে উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহসিয়া তাবাসসুম চালের বস্তায় সরকারি লোগো ও খাদ্য অধিদপ্তরের লেখা দেখে স্থানীয়র সংবাদে ট্রাকভর্তি চাল ও দবিরুল ইসলাম নামের ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

 

 


ট্যাগ :

আরো সংবাদ