শনিবার, ৪ জুলাই ২০২০ ২০শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Bangladesh Total News

ধর্ষণে বাধা দেওয়ায় চট্টগ্রামে নারীকে শ্বাসরোধে হত্যা, গ্রেপ্তার ৩

প্রকাশের সময় : ২৫ জুন, ২০২০ ১০:৪৫ : অপরাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট : চট্টগ্রাম নগরের কোতোয়ালী থানাধীন সিআরবি এলাকার মালেকা বেগম (৪৫) হত্যাকাণ্ডের রহস্য দুইদিনের মধ্যে উদঘাটন করেছে পুলিশ। পাশাপাশি এ ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে তিনজনকে।বৃহস্পতিবার দুপুরে চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (দক্ষিণ) এস এম মেহেদী হাসান তাঁর কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, ধর্ষণে বাধা দেওয়ায় এ নারীকে হত্যা করা হয়েছে।গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, মো. রুবেল প্রকাশ ভোলাইয়া (২৭), মো. সুমন (২০) ও মাইকেল বড়ুয়া (৩২)। তাদের কাছ থেকে নিহত মালেকা বেগমের ব্যবহার করা মোবাইল সেটটি উদ্ধার করেছে পুলিশ।এর আগে গত ২৩ জুন বিকেল ৫টা ১৫ মিনিটের দিকে কোতোয়ালী থানাধীন সিআরবি রেলওয়ের একটি পরিত্যক্ত বাংলোর ভেতর থেকে এক নারীর মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ফাতেমা বেগম (৪০) নামের এক নারী এসে লাশটি তার বোন মালেকা বেগমের (৪৫) বলে শনাক্ত করেন।নিহত মালেকা বেগম লহ্মীপুরের রায়পুর থানার রাখালিয়া বাজার খন্দকারপুর মুন্সি বাড়ীর আবুল হোসেন প্রকাশ সুমনের স্ত্রী। মালেকা তার প্রথম স্বামী আব্দুল জলির মারা যাওয়ার পর দ্বিতীয় বিয়ে করেন আবুল হোসেনকে। নগরের বিআরটিসি ফলমন্ডিতে শ্রমিকের কাজ করেন আবুল হোসেন।

কোতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, উক্ত ঘটনার সাথে জড়িত রুবেল প্রকাশ ভোলাইয়াকে গতকাল বুধবার (২৪ জুন) বিকেল ৫টার দিকে কোতোয়ালী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার তথ্যমতে ঘটনায় জড়িত অপর আসামি সুমনকে একদিন রাত ৮টায় জামতলার বস্তি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এরপর সুমনের তথ্যমতে মালেকার মোবাইলটির ক্রেতা মাইকেল বড়ুয়াকে এনায়েতবাজারের গোয়ালপাড়া এলাকার বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রুবেল ও সুমন জানিয়েছে, মালেকা বেগমকে নেশা করিয়ে শ্লীলতাহানি করার চেষ্টা করেছিল তারা। এ সময় মালেকার সাথে ধস্তাধস্তি হয়। তখন গলায় বোরকা দিয়ে পেঁচিয়ে মালেকাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে তারা। এরপর মালেকার মোবাইল সেটি নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে মোবাইলটি তারা মাইকেলের কাছে ২৮শ’ টাকায় বিক্রি করে দেয়।ওসি মহসীন বলেন, মোবাইল বিক্রির টাকা দিয়ে রুবেল ও সুমন ইয়াবা সেবন করে বলে জানিয়েছে। গ্রেপ্তার সুমন ছিনতাইয়ের ঘটনা নিয়ে আগে পুলিশের হাতে কয়েকবার গ্রেপ্তার হয়েছিল।


ট্যাগ :

আরো সংবাদ