মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১ ৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Bangladesh Total News

দিওড় ইউনিয়নে জনকল্যাণে চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান একধাঁপ এগিয়ে

প্রকাশের সময় : ১০ জানুয়ারি, ২০২১ ৬:০৭ : পূর্বাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট: রেজওয়ান আলী,বিরামপুর(দিনাজপুর) প্রতিনিধি-দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার দিওড় ইউনিয়নে ড্রেন কালর্ভাট নির্মান সহ জনকল্যাণমুখী উন্নয়ন কার্যক্রম চলমানে চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান। জানা যায়,৪নং দিওড় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের পর থেকে ইউনিয়নে জনসাধারণের উন্নয়নে নিয়মিত ভাবে কার্যক্রম পরিচালনা করে যাচ্ছেন।ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত ৯টি ওয়ার্ডে ড্রেন কালর্ভাট পাকা রাস্তা সংস্করণ,কাঁচা রাস্তা মাটি ভরাটের কাজ অব্যাহত ভাবে চলছে।ইউনিয়নের ধাঁনঘরা বেপারীটোলা ঝানজার হইতে আঠারো জানি গ্রাম পর্যন্ত হিয়ারিং ও রাস্তা কালর্ভাট ২টি। শিয়ালা বটতলি হইতে বিশাগড় কাঁঁচা রাস্তা,নলিয়া পাড়া থেকে মাগুরা পাড়া পর্যন্ত মাটি ভরাটের কাজ সহ প্রত্যেক ওয়ার্ডে অব্যাহত ভাবে চলমান রয়েছে। এ বিষয়ে চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমানের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সমর্থিত ৪নং দিওড় ইউনিয়ন সভাপতি ও নৌকা প্রতিকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। আমি গত ২০১৬ ইং সনে নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে সরকারের পক্ষে ইউনিয়ন অন্তর্ভুক্ত জনসাধারণের উন্নয়নে সার্বিক ভাবে কাজ করে যাচ্ছি। উক্ত কাজে সরকারের পাশাপাশি দিনাজপুর ৬ আসনে মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক এমপির সার্বিক সহযোগিতা জোরালো ভাবে পাওয়ায় এমন উন্নয়ন কার্যক্রম করতে পেরেছি,এ জন্য আমি তাকে আমার অন্তরের অন্তরস্হল থেকে জানাই শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। আমি আরও জানাই যে বিরামপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ শাখা কমিটির সকল নেতৃবৃন্দ কেও জানাই প্রাণ ঢালা শুভেচ্ছা।তারা আমার সকল সময় পাশে থেকেছে ও দিক নির্দেশনা প্রদানে কার্যক্রমে অনুপ্রাণিত করেছেন। তিনি আরও বলেন,আমি যতদিন বেঁচে থাকব ততদিন নিজেকে জনগনের কল্যানে বিলিয়ে দিব। আমার চেয়ে যদি অন্য কেহ আমার প্রতিদন্দি থাকে তবে আমি তাকে শুভেচ্ছা জানাব।কিন্তু তারা কি সরকারের পক্ষে কাজ করার চিন্তা ভাবনা কেমন রয়েছে তাহা চিন্তা ভাবনা একান্ত তদারকি করে দেখবেন স্হানীয় আওয়ামী লীগ কমিটি ও জাতীয় সংসদ সদস্য এম,পি,শিবলী সাদিক। তারা প্রকৃত নেতা বাঁছাইয়ে কোন ভূল করবেন না,এমনই প্রত্যাশা রইল।উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে আমার কার্যক্রম যথাযথ মর্যাদায় পালন করেছি।এর মধ্যে আমার কাজে দ্বায়ীত্বে কোন প্রকার অনিয়মের সূত্র পাওয়া যাবে না। আমি জোরালো ভাবে বলতে চাই,আমি গত ২০১৬ইং সনে নৌকা প্রতিকে বিজয় নিয়ে কাজ করছি। আমার অতীতের সকল কার্যক্রম স্হানীয় উপজেলা কমিটি ও জাতীয় সংসদ সদস্য ও জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকার মূল্যায়ন করবেন এমনই প্রত্যাশা আমার।প্রতিটি ওয়ার্ড পর্যায় কাঁচা রাস্তা মাটি ভরাট,পাকা রাস্তা সংস্করণ, ড্রেন,কালর্ভাট,প্রতিটি মোড়ে মোড়ে সৌরবিদ্যুৎ বাতী,বয়স্ক ভাতা,বিধুবা ভাতা,মাতৃত্বকালীন ভাতা,ভিজিএফ, ভিজিডি ভাতা,১০ টাকায় দরে নিয়মিত চাল বিতরন চলমান রয়েছে। এ পর্যন্ত ইউনিয়নে জনগণের মধ্যে বিবাদে পড়া সাধারণ মানুষের কোন মামলা মোকদ্দমা থানা কোর্ট পর্যায়ে তাদের হয়রানি বন্ধে পরিষদে উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে সমাধান করে মানুষের কল্যান সাদিত করেছি।নৌকা প্রতিক বিজয়ের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান ৪নং দিওড় ইউনিয়নে সর্বাত্বক জনকল্যাণ মূলক কাজ করে স্হানীয় আওয়ামী লীগ সমর্থিত দলের নেতৃবৃন্দ ও জাতীয় সংসদ সদস্য ও সরকার মূল্যায়ন করবেন এমনই প্রত্যাশা ইউপির জনসাধারণের। এ বিষয়ে এলাকার জনসাধারণ বলেন,পূনরায় নৌকা প্রতিক প্রদানে নেতা বাঁছাইয়ে কোন ভূল করবেন না,এমনই প্রত্যাশা সকলের।


ট্যাগ :

আরো সংবাদ