শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১ ২রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Bangladesh Total News

শিরোনাম :

সত্যিকার অর্থে কোরআনের চর্চা থাকলে মানুষ কখনো দ্বীনহারা হয় না: হেফজ সমাপ্ত ছাত্রদের দস্তারে ফজিলত অনুষ্ঠানে বক্তারা

প্রকাশের সময় : ৭ জানুয়ারি, ২০২১ ৬:২৩ : পূর্বাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট: গত ৫ জানুয়ারি ২০২১ মঙ্গলবার বিকালে আনোয়ারা উপজেলার বটতলী আল্লামা গাজী শেরে বাংলা (র.) হেফজখানা ও মডেল মাদ্রাসার হেফজ সমাপ্ত ছাত্রদের দস্তারে ফজিলত অনুষ্ঠান পরিচালনা কমিটির সভাপতি শিক্ষানুরাগী মাস্টার মোহাম্মদ আবুল হোসাইনের সভাপতিত্বে মাদ্রাসা হলে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ৪নং বটতলী ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক এম এ মান্নান চৌধুরী। উদ্বোধক ছিলেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত বাংলাদেশ আনোয়ারা উপজেলা সভাপতি পীরজাদা অধ্যক্ষ আল্লামা মাহমুদুল হক নঈমী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠা ও পরিচালক অধ্যক্ষ ডি আই এম জাহাঙ্গীর আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন ২নং বারশত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম এ কাইয়ুম শাহ, ইউসিবি কর্ণফুলী শাখার ব্যবস্থাপক আলহাজ্ব জসিম উদ্দিন আমজাদী, উপজেলা যুবলীগের যুগ্মসম্পাদক মোহাম্মদ আবদুল মালেক, ইসলামী চিন্তাবিদ আলহাজ্ব মাওলানা মো. এয়াকুব জিহাদী, ইসলামী ফ্রন্ট নেতা মো. নাছির উদ্দিন সিদ্দিকী, মাওলানা আবুল কালাম আনসারী, মাস্টার মো. নুরুল আলম, মাওলানা আহমদ নুর আলকাদেরী। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংগঠক মো. রফিকুল ইসলাম তৈয়বী। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রবাসী মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, প্রবাসী মোহাম্মদ নুর, ইউপি সদস্য মোহাম্মদ নুরুল হক, ইউপি সদস্য মোহাম্মদ ইসমাঈল, আল্লামা ইকবাল একাডেমীর অধ্যক্ষ মাস্টার কামরুল হাসান, সংগঠক মোহাম্মদ ইব্রাহীম, মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন, মোহাম্মদ মোক্তারুজ্জামান, মাস্টার মামুনুর রশীদ, সাবেক ইউপি সদস্য মোহাম্মদ নুর, ছাত্রসেনা বটতলী ইউনিয়ন সভাপতি মাহাবুবুল আলম, মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির ছোটন, মাদ্রাসার শিক্ষক হাফেজ মাওলানা মোক্তার হোসেন, হাফেজ মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মাস্টার মুরাদুল ইসলাম। দস্তারে ফজিলত গ্রহণ করেন হাফেজ মুহাম্মদ দিদারুল ইসলাম ও হাফেজ মুহাম্মদ তারেকুল ইসলাম। সভায় বক্তারা বলেন, সত্যিকার অর্থে কোরআনের চর্চা থাকলে মানুষ কখনো দ্বীনহারা হয় না এবং বর্তমান সংকটকালীন সময়ে ছাত্রদেরকে দ্বীনি শিক্ষায় উদ্ভুদ্ধ করতে পারলে সমাজ ও রাষ্ট্র থেকে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস চিরতরে নির্মুল হতে বাধ্য। তারা এলাকার শিক্ষানুরাগী ও বিত্তবানদের ধর্মীয় শিক্ষাকে গুরুত্ব দিয়ে প্রতিটি এলাকা ও মহল্লায় হেফজখানা প্রতিষ্ঠার উপর গুরুত্বারোপ করেন।


ট্যাগ :

আরো সংবাদ