রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১ ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Bangladesh Total News

চিনিকল চালুর দাবিতে গাইবান্ধায় চলছে আধাবেলা হরতাল

প্রকাশের সময় : ২৪ ডিসেম্বর, ২০২০ ৭:১৬ : পূর্বাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট চিনিকলে আখ মাড়াই কার্যক্রম বন্ধের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবিতে রংপুর সুগার মিলের গাইবান্ধার মহিমাগঞ্জ এলাকায় অর্ধদিবস হরতাল চলছে। বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া এই হরতাল চলবে দুপুর ২টা পর্যন্ত। বিশৃঙ্খলা ও অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে মহিমাগঞ্জ এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী এই হরতাল কর্মসূচির পালন করছেন মহিমাগঞ্জ চিনিকলের শ্রমিক-কর্মকর্তা-কর্মচারী ও আখ চাষিরা। হরতালের সমর্থন জানিয়ে মহিমাগঞ্জ বাজার ও স্টেশন এলাকার দোকান-পাট এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।ভোর ৬টা থেকে মহিমাগঞ্জে হরতাল পালনের বিষয়টি নিশ্চিত করে রংপুর চিনিকল শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান দুলাল জানান, দুপুর ২টা পর্যন্ত এই হরতাল পালন করা হবে। রাস্তাঘাটে কোন যানবাহন চলাচল করতে দেওয়া হবে না। বন্ধ থাকবে দোকানপাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। সকাল ৯টার পর থেকেই চিনিকলের সামনে শ্রমিক-কর্মচারী ও আখচাষীরা অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করছেন।আন্দোলকারীদের অভিযোগ, গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই রাষ্ট্রায়ত্ত চিনিকলগুলো বন্ধ করে দেওয়ার পায়তারা করা হচ্ছে। অথচ রংপুরের মহিমাগঞ্জ চিনিকলের প্রায় এক হাজার শ্রমিক-কর্মচারী ও সাত উপজেলার হাজার-হাজার আখচাষীসহ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত লক্ষাধিক মানুষ। মিলটি বন্ধের সিদ্ধান্ত থেকে সরে না আসলে শ্রমিক-কর্মচারীসহ শতশত পরিবারের সদস্য ছাড়াও এ অঞ্চলের মানুষের জীবন-জীবিকা হুমকির মুখে পড়বে বলেও দাবি আন্দোলনকারীদের।অবিলম্বে চিনিকল চালুসহ শ্রমিক-কর্মচারী ও আখ চাষিদের বকেয়া পাওনা টাকা পরিশোধে দাবি আদায় না হলে আগামীতে রেলপথ, রাজপথ অবরোধসহ আরও কঠোর আন্দোলন কর্মসূচির হুশিয়ারি দেন শ্রমিক-কর্মচারী ও আখচাষী সংগঠনের নেতারা। এর আগে, গত ১ ডিসেম্বর দেশের ১৫টি চিনিকলের মধ্যে ছয়টি চিনিকলে আখমাড়াই বন্ধ রেখে নয়টি চিনিকলে মাড়াই চালু রাখার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশন। এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার, চিনিকলে মাড়াই কার্যক্রম চালু এবং শ্রমিক-কর্মচারী ও আখচাষীদের পাওনা পরিশোধসহ বিভিন্ন দাবিতে আন্দোলনে নামেন আখচাষী ও শ্রমিক-কর্মচারীরা। ইতোমধ্যে বিক্ষোভ সমাবেশ, সড়ক অবরোধ ও অবস্থান কর্মসূচিসহ প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করেছেন আন্দোলনরত শ্রমিক-কর্মচারীরা।


ট্যাগ :

আরো সংবাদ