মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১ ৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Bangladesh Total News

ভাস্কর্যের পক্ষে জিএম কাদেরের অবস্থান

প্রকাশের সময় : ২২ ডিসেম্বর, ২০২০ ৫:৩৬ : পূর্বাহ্ণ

ডেস্ক রিপোর্ট: বঙ্গবন্ধুসহ মানব ভাস্কর্যের পক্ষে নিজের অবস্থান পরিস্কার করলেন সংসদের বিরোধীদলীয় উপনেতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের। ভাস্কর্যের পক্ষে সরকারের অবস্থানের সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন তিনি। ভাস্কর্যের পক্ষে জিএম কাদেরের অবস্থান, পয়লা জানুয়ারি সীমিতভাবে জাতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন, কর্মসূচি পালনের জন্য চাঁদা নির্ধারণ, বিভাগীয় অতিরিক্ত মহাসচিবদের সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ, সংগঠনকে শক্তিশালী করার নির্দেশনার মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সভা। সোমবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে বনানীর চেয়ারম্যান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত দলের প্রেসিডিয়াম সভায় এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়। দলের চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদেরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় পার্টির সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি, কো-চেয়ারম্যান এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা এমপি, মুজিবুল হক চুন্নু এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা, শেখ মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, ফকরুল ইমাম এমপি, সৈয়দ মোহাম্মদ আব্দুল মান্নান, হাবিবুর রহমান, সুনীল শুভরায়, এস এম ফয়সল চিশতী, মীর আব্দুস সবুর আসুদ, হাজী সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, মো. আজম খান, এটিইউ তাজ রহমান, মসিউর রহমান রাঙ্গা এমপি, সোলায়মান আলম শেঠ, আব্দুর রশীদ সরকার, সফিকুল ইসলাম সেন্টু, শামীম হায়দার পাটোয়ারী এমপি, মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, সৈয়দ দিদার বখ্ত, নাজমা আখতার এমপি, আব্দুস সাত্তার মিয়া, আলমগীর সিকদার লোটন, এমরান হোসেন মিয়া, মেজর (অব.) রানা মোহাম্মদ সোহেল এমপি, লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি, জহিরুল ইসলাম জহির, ক্কারী হাবিবুল্লাহ বেলালী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সভায় সভাপতির বক্তব্যে ভাস্কর্য নিয়ে কথা বলেন গোলাম মোহাম্মদ কাদের। তিনি বলেন, আগেও দেশে মানব ভাস্কর্য ছিল, কিন্তু তখন তো এ ধরনের কথা ওঠেনি। এখন কেন উঠছে? ভাস্কর্য ইস্যুতে যে কোনো অস্থিতিশীল পরিস্থিতির বিষয়ে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। সরকারকে সজাগ থাকতে হবে। বৈঠকে উপস্থিত নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলের এক প্রেসিডিয়াম সদস্য এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, সরকারের সঙ্গে সূর মিলিয়ে মানবভাস্কর্যের পক্ষে অবস্থান ব্যক্ত করেছেন আমাদের পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের। তবে এ বিষয়ে পক্ষে বিপক্ষে প্রেসিডিয়াম সদস্যরা কেউ কোনো কিছুই বলেননি। সবাই নীরবে তার বক্তব্য শুনেছেন। সভায় তিনি ভেদাভেদ ভুলে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান। জানা গেছে, পয়লা জানুয়ারি জাতীয় পার্টি দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করবে। করোনাভাইরাসের কারণে দলের কাকরাইলে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সীমিত পরিসরে কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এছাড়া সারা দেশে দলটি প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজন করবে। কর্মসূচি পালনের জন্য চাঁদা নির্ধারণ করা হয়েছে। দলের কো-চেয়ারম্যানদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার, সংসদ সদস্যদের ২৫ হাজার আর প্রেসিডিয়াম সদস্যদের ২০ হাজার টাকা করে দিতে হবে। সভায় দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের কর্মসূচি সম্পর্কে কথা বলেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য এস এম ফয়সল চিশতী। তিনি সীমিত আলোচনার পাশাপাশি পোস্টার, ব্যানার করে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর ব্যাপক প্রচারের মতামত দেন। একইসঙ্গে তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে নিহত দলের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য মেজর অবসর খালেদ আকতারসহ প্রয়াত নেতাদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় শোক প্রস্তাব দেন।  সভায় দলের ৮ বিভাগের অতিরিক্ত মহাসচিবরা তাদের সাংগঠনিক রিপোর্ট তুলে ধরেন। তারা এ সময় বলেন, বিভিন্ন স্তরের মানুষ জাতীয় পার্টিতে আসতে চায়। জাতীয় পার্টির জন্য তৃণমূলে সাধারণ মানুষ মুখিয়ে আছে। সাংগঠনিকভাবে তাদের একছাতায় আনা গেলে জাতীয় পার্টি আগামীতে ক্ষমতায় যাবে। খুলনা বিভাগের সাংগঠনিক রিপোর্ট পেশ করেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও খুলনা বিভাগের অতিরিক্ত মহাসচিব সাহিদুর রহমান টেপা, চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত মহাসচিব রেজাউল ইসলাম ভুইয়া, ঢাকা বিভাগের অতিরিক্ত মহাসচিব লিয়াকত হোসেন খোকা এমপি। প্রেসিডিয়াম সভা শেষে বৈঠক নিয়ে ব্রিফিং করেন দলের মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু।


ট্যাগ :

আরো সংবাদ